নগদ একাউন্ট লক হলে করনীয় কি? Nagad Account lock

নগদ একাউন্ট ব্যবহার করার ক্ষেত্রে আপনি যদি লগইন করার সময়, পরপর তিনবার ভুল পিন টাইপ করেন, তাহলে নগদ একাউন্ট লক হয়ে যাবে। লক হওয়ার পরে নগদ একাউন্ট লক হলে করণীয় সম্পর্কে জেনে নেয়ার প্রয়োজন।

অর্থাৎ আপনার নগদ একাউন্ট যদি লক হয়ে যায়, তাহলে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম বা নগদ একাউন্ট লক হলে করণীয় সম্পর্কে জেনে নেয়ার দরকার আছে।

এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আলোচনা করা হবে আপনার নগদ একাউন্ট যদি কোনো কারণে লক হয়ে যায়, তাহলে নগদ একাউন্ট ব্লক হওয়া থেকে বাচাতে হলে কি করতে হবে or নগদ একাউন্ট লক হলে করনীয় এ সম্পর্কে বিস্তারিত।

নগদ একাউন্ট লক হয় কেন?

নগদ একাউন্ট দেখার করার সময় আপনি যদি কোনো লেনদেন কিংবা অন্যান্য যে কোন কাজ করার ক্ষেত্রে পরপর তিনবার ভুল পিন টাইপ করে দেন, তাহলে নগদ একাউন্ট লক হয়ে যাবে।

এটি মূলত টেম্পোরারি লক, আপনি কয়েকটি স্টেপ ফলো করার মাধ্যমে এই লক থেকে আপনার অ্যাকাউন্ট আনলক করতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট পিন লক হওয়ার একটি মাত্র কারণ আছে। আর সেটি হলো, বারবার ভুল পিন টাইপ করে একাউন্টের কাজ সম্পন্ন করার চেষ্টা করা। আর তাই একাউন্ট লক হওয়া রুখতে হলে, পিন নাম্বার ভুলে গেলে ভুল পিন দিয়ে বারবার চেষ্টা করা থেকে বিরত থাকুন।

এক্ষেত্রে কাস্টমার কেয়ার নাম্বারে কল দিয়ে আপনার ইনফরমেশন দিয়ে নগদ একাউন্ট এর পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করেনিন।

নগদ একাউন্ট লক হলে করনীয় কি?

কোন কারণে আপনার নগদ একাউন্ট যদি লক হয়ে যায় কিংবা নগদ একাউন্ট লক হলে করনীয় সম্পর্কে নিচে আলোচনা করা হলো।

আপনার অ্যাকাউন্ট আনলক করার জন্য প্রথমত নগদ এজেন্ট নাম্বার রয়েছে সে হেল্পলাইন নাম্বারে কল করুন।

নগদ একাউন্ট এর কাস্টমার কেয়ার নাম্বার
16167

যখনই নগদ হেল্পলাইন নাম্বারে কল করে দিবেন, তখন তাদেরকে এই সম্পর্কে অবগত করুন সেই আপনার নগদ একাউন্টের পিন লক হয়ে গেছে এবং আপনি একাউন্ট আনলক করতে চান।

এবার আপনার নগদ একাউন্ট রিলেটেড কিছু তথ্য সম্পর্কে জানতে চাইবে, আপনি নগদ একাউন্টের যে আইডি কার্ড রিলেটেড ডিটেলস হয়েছে সে সমস্ত ডিটেলস গুলো তাদেরকে বলে দিন।।

সেই তথ্যগুলো হতে পারে, আপনার নাম, বাবা মায়ের নাম, জন্ম তারিখ ইত্যাদি।

আইডি কার্ড রিলেটেড সমস্ত ডিটেলস গুলো দেয়ার পরে কয়েক মিনিটের মধ্যে তারা আপনার নগদ একাউন্টের পিন রিসেট অপশনে চালু করে দিবে। এবং পুনরায় আপনি পিন রিসেট করে একাউন্ট কন্ট্রোল করতে পারবেন।

আর এটি হলো মূলত নগদ একাউন্ট লক হয়ে গেলে এই একাউন্ট পুনরায় ফিরিয়ে আনার যে পদ্ধতি রয়েছে সেই পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত।

তবে এখানে একটি বিষয় অবশ্যই লক্ষ্য রাখবেন, সেটি হল পিন লক হওয়ার পূর্বে যদি আপনার নগদ একাউন্টের পিন ভুলে যান, তাহলে ভুল পিন টাইপ কখনোই করবেন না।

বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলে নগদ হেল্পলাইন নাম্বারে কল করার মাধ্যমে পিন রিসেট করে নিবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top