নগদ একাউন্টের সুবিধা ২০২২ | Nagad Account

আপনি যদি নগদ একাউন্টের একজন ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন কিংবা নগদের নাম শুনে থাকেন, তাহলে নিশ্চয়ই নগদ একাউন্টের সুবিধা সম্পর্কে জানতে চাই করবেন।

বাংলাদেশের যত রকমের মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট থাকার পরেও, আপনি যখন নগদ একাউন্ট ব্যবহার করবেন, তখন নগদ একাউন্ট এর কোন সুবিধাগুলো উপভোগ করতে পারবেন, সে সম্পর্কে জানার প্রয়োজন রয়েছে।

এ ছাড়া অন্য যে সমস্ত মোবাইল ব্যাংকিং রয়েছে সে সমস্ত মোবাইল ব্যাংকিং এর চেয়ে নগদ কতটা এগিয়ে রয়েছে সে সম্পর্কে জানার জন্য নগদ একাউন্টের যে সুবিধা রয়েছে তা সম্পর্কে জানার প্রয়োজন আছে।

আজকের এই আর্টিকেলের মূলত আলোচনা করা হবে, নগদ একাউন্ট এর যে সমস্ত সুবিধা রয়েছে সে সমস্ত সুবিধা সম্পর্কে।

অর্থাৎ কোন কোন কারনে আপনি এই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করবেন এবং এই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করার ক্ষেত্রে আপনার যে লাভ হতে পারে, সেই লাভ সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

নগদ একাউন্ট এর সুবিধা কি কি?

একজন নগদ একাউন্ট ব্যবহারকারী হিসেবে আপনি যে সমস্ত সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন, সে গুলোর একটি লিস্ট নিচে তুলে ধরা হলো।

  • কম ক্যাশ আউট চার্জ।
  • কার্ড থেকে এবং ব্যাংক থেকে অ্যাড মানি।
  • মোবাইল রিচার্জ করা।
  • যেকোন রকমের বিল পরিশোধ।
  • টাকা সঞ্চয় করা।
  • মুনাফা অর্জন।
  • আয়কর দেয়ার সুযোগ।
  • নগদ থেকে বিকাশে টাকা টান্সফার ইত্যাদি।

একজন নগদ ব্যবহারকারী হিসাবে উপরে উল্লেখ্য সুবিধা ছাড়াও আরও অনেক রকমের সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। তবে উপরে উল্লেখিত সুযোগ সুবিধা গুলো খুবই কমন।

তাহলে এবার উপরে উল্লেখিত সুযোগ-সুবিধাগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

কম ক্যাশ আউট চার্জ

আপনি কি এ সম্পর্কে জানেন? আপনি যদি নগদ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে থাকেন তাহলে নগদ একাউন্ট ব্যবহার করা মাধ্যমে বাংলাদেশের সবচেয়ে কম মোবাইল ব্যাংকিং ক্যাশ আউট চার্জ উপভোগ করতে পারবেন?

যদি না জেনে থাকেন তাহলে এই সম্পর্কে জেনে নিন যে আপনি চাইলে নগদ আউট অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করার মাধ্যমে সবচেয়ে কম ক্যাশ আউট চার্জ উপভোগ করতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট ব্যবহার করার ক্ষেত্রে ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে এবং নগদ অ্যাপ ব্যবহার করেছে ক্যাশ আউট চার্জ রয়েছে সে স্পেশাল চার্জ নিচে দেয়া হল।

  • অ্যাপ ৯.৯৯ টাকা এবং ভ্যাটসহ ১১.৪৯ টাকা
  • ইউএসএসডি ১২.৯৯ টাকা এবং ভ্যাটসহ ১৪.৯৪ টাকা।

অ্যাপ ব্যবহার করার মাধ্যমে এবং ইউএসএসডি কোড ডায়াল করার মাধ্যমে উপরে উল্লেখিত ক্যাশ আউট চার্জ এর মাধ্যমে নগদ একাউন্ট থেকে আপনি ক্যাশ আউট করতে পারবেন।

ব্যাংক এবং কার্ড থেকে অ্যাডনানি

নগদ একাউন্টে আপনি চাইলে ব্যাংক এবং যেকোন ডেবিট কিংবা ক্রেডিট কার্ড থেকে টাকা যোগ করতে পারবেন।

যে কোন গুরুত্বপূর্ণ সময় আপনার একাউন্টে যদি টাকা ফুরিয়ে যায়, তাহলে আপনি ব্যাংক একাউন্ট থেকে এবং কার্ড থেকে টাকা যুক্ত করতে পারবেন।

মোবাইল রিচার্জ

এছাড়াও যেকোনো গুরুত্বপূর্ণ সময় আপনার মোবাইলে রিচার্জ করার প্রয়োজন হলে, আপনি নগদ একাউন্ট থেকে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট থেকে মোবাইল রিচার্জ করার ক্ষেত্রে আপনি যদি নগদ অ্যাপ ব্যবহার করার মাধ্যমে মোবাইল রিচার্জ করেন, তাহলে খুব সহজে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

বিল পেমেন্ট করা

এছাড়াও নগদ একাউন্ট ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি চাইলে বিদ্যুৎ বিল, পানির বিল, ইন্টারনেট বিল এবং আরও বিভিন্ন রকমের বিল পরিশোধ করতে পারবেন।

কাজেই আপনি যদি ঘরে বসে যেকোন রকমের বিল পেমেন্ট করতে চান, তাহলে নগদ একাউন্ট সুবিধা হিসেবে এই সেবাটি নিতে পারেন।

আয়কর পরিশোধ

এছাড়াও আপনি যদি ঘরে বসে নগদ একাউন্টের মাধ্যমে আয়কর করতে চান, তাহলে সরকারের ধার্য করা সেই আয়কর আপনি দিতে পারবেন।

কোন রকমের জটিলতা ছাড়া কিছু স্টেপ ফলো করার মাধ্যমে আপনি সহজেই নগদ ব্যবহার ব্যবহার করার মাধ্যমে নগদ একাউন্টের সুবিধা হিসেবে এই আয়কর দিতে পারবেন।

নগদ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার

এছাড়াও নগদ একাউন্ট এর আরেকটি সুবিধা রয়েছে আর সেটি হল আপনি চাইলে সহজেই নগদ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

আপনি যদি লক্ষ্য করেন তাহলে দেখতে পারবেন বাংলাদেশের যে সমস্ত মোবাইল ব্যাংকিং অপারেটর রয়েছে, সেগুলি থেকে একটি থেকে আরেকটিতে ইতিমধ্যে টাকা প্রদান করা যায় না।

তবে নগদ একাউন্ট এর স্পেশাল সুবিধা হিসেবে নগদ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার করার সুবিধাটি আপনি পেয়ে যাবেন।

ঠিক ওইরকম ভাবে আপনি বিকাশ থেকে নগদ এ কিন্তু টাকা প্রেরন করতে পারবেন না। অর্থাৎ শুধুমাত্র আপনি চাইলে নগদ থেকে বিকাশে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন বিকাশ থেকে নগদে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন না।

সেন্ড মানি

নগদ একাউন্ট ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি চাইলে অন্য যেকোন নগদ একাউন্টে টাকা প্রেরণ করার মত সুবিধা পাবেন।

এছাড়াও আপনি যেকোন ই-কমার্স পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে নগদ পেমেন্ট মেথড এর মাধ্যমে পেমেন্ট করতে পারবেন এবং যেকোন লেনদেনের ক্ষেত্রে নগদ সেন্ড মানি অপশন আপনার প্রয়োজনে আসবে।

টাকা সঞ্চয়

আপনি চাইলে নগদ ব্যবহার করে মাধ্যমে টাকা সঞ্চয় করতে পারবেন এবং এই টাকা সঞ্চয় করার পরিবর্তে আপনি ইন্টারেস্ট উপভোগ করতে পারবেন।

মূলত, নগদ একাউন্ট থেকে আপনি চাইলে বিভিন্নভাবে টাকা সঞ্চয় করতে পারবেন এবং বিভিন্ন রকমের টাকার পরিমাণ এর জন্য আপনি বিভিন্ন রকমের মুনাফার হার উপভোগ করবেন।

নগদ একাউন্ট মুনাফার হার হিসেবে সর্বোচ্চ মুনাফা লাভের পরিমাণ হল ৭.৫%

এছাড়াও আপনার টাকার অংকের পরিমানের উপর নির্ভর করে আপনার মুনাফার হার পরিবর্তন হতে পারে এবং কমবেশি হতে পারে।

আর এই সমস্ত সুযোগ সুবিধা গুলো ছাড়াও নগদ একাউন্ট সুবিধা হিসেবে আরও বিভিন্ন রকম সুযোগ-সুবিধা রয়েছে, যা আপনি নগদে আসার পরে টের পাবেন।

আশাকরি, নগদ একাউন্টের সুবিধা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পেরেছেন এবং নগদ একাউন্টের সুবিধা জানার পরে নগদ একাউন্টে এবার একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে এক্টু হলেও ঝুকে পড়বেন ।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top